দুর্যোগে আপনার বাড়ির দরকার যে ৫টি পূর্বপ্রস্তুতি

সময় এখন কালবৈশাখী ঝড়ের। হঠাৎ আকাশের রং কালো হয়ে ঝুম বৃষ্টি শুরু হওয়া এবং সেই সাথে ১০০ কিলোমিটার গতিতে প্রবাহিত ঝড়ো হাওয়া এই সময়ের একটি স্বাভাবিক ঘটনা। কখনো আবার হঠাৎ শুরু হয়ে যেতে পারে বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ। প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যের সাক্ষী এই কালবৈশাখী। তবে এই সময়ে সামান্য অসাবধানতার কারনে আপনার বাড়ি ঘর হতে পারে বিরাট ক্ষতির সম্মুখীন। আসুন জেনে নেই কিভাবে খেয়াল রাখতে পারেন যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগে আপনার ঘরবাড়ির।

 

আবহাওয়ার আপডেট

টেকনোলজির এই যুগে কোন কিছুর আপডেট পাওয়াটা এখন কোন কষ্টের ব্যাপার নয়। টেলিভিশন, রেডিও ছাড়াও এখন আবহাওয়ার আপডেট পাওয়া যায় প্রতিটি স্মার্ট ফোনে। দুর্যোগের পূর্বাভাস গ্রহণের ক্ষেত্রে সতর্ক হোন। দুর্যোগ কতদিন পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে সেই ধারণা থাকলে দুর্যোগটি মোকাবেলায় আপনার সুবিধা হবে।

বাহ্যিক প্রস্তুতি

বাড়ির বাহিরে যদি টব, আসবাবপত্র, খেলনা সামগ্রী, ইত্যাদি থেকে থাকে তাহলে সেগুলোকে দুর্যোগ পূর্বাভাস পাওয়ার সাথে সাথে যথাসম্ভব নিরাপদ স্থানে সরিয়ে ফেলুন। এছাড়া বাড়ির আসে পাশে যদি মৃত/শুকনো গাছপালা থাকে তাহলে সেগুলো নিজ দায়িত্বে কেটে ফেলুন। বাড়ির ড্রেনেজ সিস্টেমের প্রতি এক্সট্রা যত্নবান হোন।

অভ্যন্তরীণ প্রস্তুতি

বাড়ির দরজা এবং জানার লক ঠিক আছে কিনা এবং পূর্ববর্তী কোন ফাটল আছে কিনা তা চেক করে নিন। দুর্যোগের মাত্রা বেশি হলে কাচের জানালার নিকটে থাকবেন না।

আপনার বাড়ির গ্যারেজটি যদি নিচু স্থানে হয় তাহলে অতিরিক্ত বৃষ্টিপাত অথবা বনায় তা তলিয়ে যেতে পারে। এমন অবস্থায় গ্যারেজের ছোটখাটো জিনিসগুলো সরিয়ে ফেলুন এবং বাধ দেয়ার ব্যাবস্থা করুন। গ্যারেজের দরজার আকার তুলনামুলক ভাবে বড় হওয়ার কারনে সেটির ঝড় প্রতিরোধ ক্ষমতা কম। তাই দরজায় এক্সট্রা ব্রেস ব্যাবহার করুন। গ্যারেজের ভেতরে গাড়ীটি ঠিক পজিশনে আছে কিনা সেটি নিশ্চিত করুন।

বাড়ি তৈরি করার সময় একটি গুরুত্বপূর্ণ লক্ষণীয় বিষয় হচ্ছে বাড়ির দেয়ালের প্লাস্টার। ভালোভাবে প্লাস্টার করা না হলে পরবর্তী যেকোনো দুর্যোগে সেটির প্রভাব পড়বে বাড়ির ভেতরে। প্লাস্টার এর কন্ডিশন চেক করে নিন এবং দরকার হলে পুনরায় প্লাস্টার করুন। বর্তমানে ভাল কিছু ওয়াটার প্রুফ কালার আছে যা আপনাকে কিছুটা হলেও বৃষ্টি সংক্রান্ত ড্যামেজ থেকে মুক্তি দিবে।

ইলেক্ট্রিসিটি চেকিং

দুর্যোগ সম্ভাবনাময় সিজনের আগেই বাড়ির ইলেকট্রিক সংযোগ গুলো প্রফেশনাল দ্বারা চেক করিয়ে নিন। বর্তমানে অনেক বাড়িতে স্মার্ট ইলেক্ট্রনিক কানেকশন থাকে যার মাধ্যমে সহজেই কন্ট্রোল করতে পারেন আপনার বাড়ির সম্পূর্ণ বৈদ্যুতিক অবস্থা। সেই সাথে কমিয়ে ফেলতে পারেন দুর্ঘটনার মাত্রা অনেক ক্ষেত্রে।

ইউটিলিটি স্টোরেজ

দীর্ঘ সময় স্থায়ী কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগের পূর্বাভাস পেলে বাড়িতে শুকনো খাদ্য মজুদ করুন। সম্ভাব্য ব্যাবহার উপযোগী ওষুধপত্র কিনে রাখুন। মোমবাতি, তেল, টর্চ লাইট, চার্জার ইত্যাদি প্রয়োজনীয় সামগ্রী হাতের কাছে রাখুন।

to do during storm
EMERGENCY SUPPLIES

দুর্ঘটনা মোকাবেলায় আপনার যদি আরও কিছু অভিমত থাকে তাহলে কমেন্ট সেকশনে আমাদের তা জানাতে পারেন। অথবা ঘুরে আসতে পারেন আমাদের ফেসবুক পেজ থেকে।

 

Share with Friends:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *