একদিনে প্যাক করুন বাড়ির সব কিছু

pack and shift in dhaka

বাসা-বাড়ি বদল অবশ্যই একটি প্রচণ্ড ঝামেলার কাজ! বাড়ির এত জিনিসপত্র এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নেয়াটা কত কঠিন সেটি শুধুমাত্র যারা করে তারাই বোঝে। একটি বাড়িতে তো আর অল্প কিছু থাকে না! সব কিছু আলাদা ভাবে প্যাক করা,  সেই প্যাকেজ গুলো বহন করা, তারপর আবার গুছিয়ে রাখা – অনেক ঝক্কি-ঝামেলার কাজ। অনেকেই এই কাজ গুলো করতে অনেক সময় নেয়। এই কাজ একদিনে করা গেলে খুব ভালো হত। আজ সেটি নিয়েই আমাদের এই ব্লগ।

প্যাকেজিং শুরু করার আগে থেকেই কিছু জিনিস আপনার হাতের নাগালে রাখা লাগবে-

  • কার্ডবোর্ড বক্স
  • পুরনো পত্রিকা
  • বাবল র‍্যাপ
  • প্যাকিং টেপ
  • প্যাকিং পেপার
  • মার্কার
  • কাঁচি

নিজে নিজে বাড়ি বদল করতে উপরের জিনিসগুলো আপনার অবশ্যই লাগবে। এগুলো ছাড়া বাসা-বাড়ি বেশ ঝামেলাপূর্ণ হয়ে যাবে। আপনি যদি প্যাকিং এর কাজ নিজে না করে অন্য কাউকে দিয়ে করাতে চান সেক্ষেত্রে এই প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো তারাই সঙ্গে করে নিয়ে আসবে।

যেভাবে একদিনে গোছাবেন আপনার বাসা-বাড়িঃ

এই চেকলিস্টে আপনি পাবেন একদিনে বাসা-বাড়ি বদলের সব রকমের তথ্য।

  • প্রত্যেক রুম আলাদা ভাবেঃ একেক রুমে একেক কাজে বার বার না গিয়ে একটি রুমের সব কাজ একই সাথে শেষ করে ফেললে সময় এবং শক্তি দুইটিই সাশ্রয় হয়।
  • অপ্রয়োজনীয় জিনিস আলাদা করুনঃ বাসা-বাড়ি শিফট করার অন্তত দুই সপ্তাহ আগে থেকে অপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলো আলাদা করে রাখুন। নতুন বাড়িতে অপ্রয়োজনীয় জিনিস গুলো না নিয়ে বরং ওগুলো কোথাও ডোনেট করে দিতে পারেন।
  • বক্সগুলোয় লেবেল যুক্ত করুনঃ একটি বাড়িতে অনেক ধরনের জিনিস থাকে। একেক জাতীয় জিনিস একেক বক্সে আলাদা করে প্যাক করতে হবে। যেমনঃ বাড়ির সব কাপড়-চোপড় এক বক্সে, কাচের জিনিসপত্র অন্য বক্সে, রান্নাঘরের জিনিসপত্র অন্য বক্সে রেখে আলাদা ভাবে লেবেল লাগাতে হবে।
  • প্রত্যেক সদস্যের জন্য আলাদা বক্সঃ বাড়ির সকল সদস্যের জিনিসপত্র আলাদা হয়ে থাকে। বাড়ির সব জিনিসপত্র একসাথে বক্সে নিয়ে প্যাক করলে কেউই ঠিক মত তার জিনিস খুঁজে পাবেন না! এজন্য বাড়ি শিফট করার সময় প্রত্যেক সদস্যের জন্য আলাদা আলাদা বক্স রাখা উচিৎ।

এই বিষয়গুলো মেইনটেইন করে কাজ করলে খুবই দ্রুততার সাথে শেষ হবে বাসা-বাড়ি শিফটের কাজ। বাসা-বাড়ি শিফট করার সময় এই বিষয়গুলো অবশ্যই খেয়াল রাখবেন।

Share with Friends:

Check These 5 Household Issues Before a Vacation!!! বেড়াতে যাওয়ার আগে!

ফ্যামিলি ট্রিপ এ যাচ্ছেন? নিশ্চয়ই লোকেশন বুক করা শেষ। আকর্ষণীয় স্পট গুলো অনুসন্ধান করেছেন, ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস গুলো রিচার্জ করেছেন, ব্যাগ গুছানোও হয়তো শেষ। তবে একটি স্মার্ট ট্রাভেলিং শুরু হয় ঘর ছেড়ে যাওয়ার পূর্ব থেকেই। আর, তা না হলে ট্রাভেলিং এর মজা অনেকটুকুই ক্ষীণ হয়ে যাবে বাসায় ফিরে আসার পরে।

আসুন জেনে নেই যাত্রা শুরু করার আগে যে ৫ টি জিনিস রাখতে হবে আপনার চেক লিস্টে।

 

পানির লাইন 

পানির লাইনে লিক হওয়াটা সাভাবিক। আর এই লিক যদি ঘটে থাকে আপনার অনুপস্থিতিতে তাহলে সেটি অনেক বড় সমস্যার কারন হতে পারে। এছারাও টাঙ্কিতে জমে থাকা পানিতে জীবাণু জন্মায়। তাই বাসার পানির সব উৎস গুলো খালি করে মেইন লাইন অফ করে দিন। আর যদি আগে থেকেই লিক থেকে থাকে তাহলে ঘর ছেড়ে যাওয়ার আগেই তা ঠিক করে নিন।

5 Things to Do Before a Vacation
water supply

ইলেকট্রনিক্স 

যদি বাসায় সিকিউরিটি সিস্টেম যেমন সি সি ক্যামেরা, অ্যালার্ম ইত্যাদি একটিভ থাকে, তাহলে মেইন লাইন থেকে কানেকশন অফ না করাই ভালো। এমন অবস্থায় দুর্ঘটনা এড়াতে অবশ্যই বাসা ছেড়ে যাওয়ার আগে দৈনন্দিন কাজে ব্যাবহার হয় এমন সব ধরনের ইলেকট্রনিক আইটেম সমূহ আনপ্লাগ করুন।

5 Things to Do Before a Vacation
electronic devices.

টাইমার

খালি বাড়ি রেখে যাওয়া মানে চোর ডাকাতদের নিমন্ত্রণ দেয়া। তাই ঘরে একটি টাইমার ইন্সটল করুন। টাইমার আপনার ঘরের কিছু লাইট রাতের বেলা অন করে দিবে এবং সকাল বেলা অফ করে দিবে। এছারাও এটি ঘরের বিদ্যুৎ কানেকশন গুলো মনিটর করতে সাহায্য করে।

5 Things to Do Before a Vacation
timer

পরিচ্ছন্নতা

ট্রাভেল থেকে আসার পর ক্লান্ত শরীরে কেউই পরিস্কারের ঝামেলা নিতে চায় না। তাছারা অপরিষ্কার বাড়ীতে পোকামাকড়ের আস্থানা হয়ে থাকে। তাই ট্যুরে যাওয়ার আগে ঘর যথা সম্ভব পরিষ্কার করে রাখুন। শুকনো খাবার এবং আসবাবপত্র গুলো পুরনো চাদর বা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন। এতে করে ঘরে ফিরে আসলে পরিষ্কার করার ঝামেলা পোহাতে হবে না।

5 Things to Do Before a Vacation
garbage

এন্টিবায়োটিক

টয়লেট অথবা রান্না ঘরকে দুরঘন্ধ ও জীবাণু মুক্ত রাখতে ব্লিচিং পাউডার ছিটিয়ে দিন। ঘরে যখন ফিরে আসবেন তখন আর আপনাকে অসস্থিকর অবস্থা সহ্য করতে হবে না।

5 Things to Do Before a Vacation
drains and toilet.

বেড়াতে যাওয়ার আনন্দ ফিরে এসে নষ্ট হতে দেবেন কেন? আপনার অবর্তমানে আপনার ঘরটিকে পারফেক্ট রাখতে চাইলে হ্যান্ডিমামা আপনাকে দেবে সব ধরনের সাহায্য।

 

Share with Friends:

10 colors for Cozier home। আপনার মুগ্ধকর ঘরের জন্যে…… (পর্ব-১)

living in colors

নিজের ঘরটি সাজাতে কতো কিছুই না চিন্তা করি আমরা। আসবাবপত্র থেকে দেয়ালের ঘড়িটা পর্যন্ত। তবে অনেকেরই ঘরটির রঙের ব্যাপারে থেকে যায় উদাসীনতা। এই রং আমাদের রুচিবোধকে তুলে ধরে অন্যের  কাছে। আপনার মনকেও প্রফুল্ল রাখে এই রং। তাই আসুন এখন জেনে নেই কি রং দিয়ে রাঙানো যায় আপনার স্বপ্নের ঘরটিকে।

 

Blush:

এক্সপার্টরা বলে থাকেন Blush হচ্ছে প্রানের প্রতীক। আপনার ঘরকে যদি প্রান দিতে চান, তাহলে এটি একটি চমৎকার উপায়। আর যদি ঘরে কোন শিশু থাকে তাহলে তাদের উদ্দামতার ছবি তুলে ধরবে এই রং।

BLUSH

 

Pretty Peach:

ঘরের মেঝে এবং আসবাবপত্র যদি একটু কালারফুল রাখতে পছন্দ করেন তাহলে এই রঙটি আপনার জন্যে পারফেক্ট। হালকা রং হলেও এটি ঘরের উজ্জ্বলতা বাড়াতে সাহায্য করে।

PRETTY PEACH

 

Soft Gold:

ঘরে অথবা ঘরের সিলিংয়ে হালকা সোনালির ছোঁওয়া আনতে পারে আভিজাত্যের পরশ পুরটা বাড়ি জুরে। এছারাও এটি ঘরকে রাখবে উজ্জ্বল সারাদিন। তবে রঙটির শেড যেন বেশি হয়ে না যায় সেইদিকটিও খেয়াল রাখতে হবে।

SOFT GOLD

 

Rustic green:

যদি আপনার ড্রইং রুম/ রিডিং রুমটি হয় কিছুটা পুরনো খেয়ালের তাহলে Rustic green আপনাকে দিবে সেই পুরাতন দিনের অনুভুতি, যেমনটা ছিল আদ্যিকালের সেই জমিদার বাড়িগুলো। আপনিও পারেন উদাস মনে সন্ধ্যাটিকে কাটিয়ে দিতে পছন্দের বইটির সাথে।

RUSTIC GREEN

 

Dark Gray:

যদিও Gray অনেকেই পছন্দ করেন না কারন এটি ঘরকে কিছুটা অন্ধকারাচ্ছন্ন করে রাখে। তবুও এটি আপনার ড্রইং রুমকে এনে দিতে পারে আভিজাত্তের ছোঁয়া। Black Wood এর আসবাবপত্র এই রঙের দেয়ালকে দিতে পারে পারফেকশন।

DARK GRAY

সাথে থাকুন আরও চমৎকার ৫টি রঙের কথা জানতে ….

Share with Friends: