একদিনে প্যাক করুন বাড়ির সব কিছু

pack and shift in dhaka

বাসা-বাড়ি বদল অবশ্যই একটি প্রচণ্ড ঝামেলার কাজ! বাড়ির এত জিনিসপত্র এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নেয়াটা কত কঠিন সেটি শুধুমাত্র যারা করে তারাই বোঝে। একটি বাড়িতে তো আর অল্প কিছু থাকে না! সব কিছু আলাদা ভাবে প্যাক করা,  সেই প্যাকেজ গুলো বহন করা, তারপর আবার গুছিয়ে রাখা – অনেক ঝক্কি-ঝামেলার কাজ। অনেকেই এই কাজ গুলো করতে অনেক সময় নেয়। এই কাজ একদিনে করা গেলে খুব ভালো হত। আজ সেটি নিয়েই আমাদের এই ব্লগ।

প্যাকেজিং শুরু করার আগে থেকেই কিছু জিনিস আপনার হাতের নাগালে রাখা লাগবে-

  • কার্ডবোর্ড বক্স
  • পুরনো পত্রিকা
  • বাবল র‍্যাপ
  • প্যাকিং টেপ
  • প্যাকিং পেপার
  • মার্কার
  • কাঁচি

নিজে নিজে বাড়ি বদল করতে উপরের জিনিসগুলো আপনার অবশ্যই লাগবে। এগুলো ছাড়া বাসা-বাড়ি বেশ ঝামেলাপূর্ণ হয়ে যাবে। আপনি যদি প্যাকিং এর কাজ নিজে না করে অন্য কাউকে দিয়ে করাতে চান সেক্ষেত্রে এই প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো তারাই সঙ্গে করে নিয়ে আসবে।

যেভাবে একদিনে গোছাবেন আপনার বাসা-বাড়িঃ

এই চেকলিস্টে আপনি পাবেন একদিনে বাসা-বাড়ি বদলের সব রকমের তথ্য।

  • প্রত্যেক রুম আলাদা ভাবেঃ একেক রুমে একেক কাজে বার বার না গিয়ে একটি রুমের সব কাজ একই সাথে শেষ করে ফেললে সময় এবং শক্তি দুইটিই সাশ্রয় হয়।
  • অপ্রয়োজনীয় জিনিস আলাদা করুনঃ বাসা-বাড়ি শিফট করার অন্তত দুই সপ্তাহ আগে থেকে অপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলো আলাদা করে রাখুন। নতুন বাড়িতে অপ্রয়োজনীয় জিনিস গুলো না নিয়ে বরং ওগুলো কোথাও ডোনেট করে দিতে পারেন।
  • বক্সগুলোয় লেবেল যুক্ত করুনঃ একটি বাড়িতে অনেক ধরনের জিনিস থাকে। একেক জাতীয় জিনিস একেক বক্সে আলাদা করে প্যাক করতে হবে। যেমনঃ বাড়ির সব কাপড়-চোপড় এক বক্সে, কাচের জিনিসপত্র অন্য বক্সে, রান্নাঘরের জিনিসপত্র অন্য বক্সে রেখে আলাদা ভাবে লেবেল লাগাতে হবে।
  • প্রত্যেক সদস্যের জন্য আলাদা বক্সঃ বাড়ির সকল সদস্যের জিনিসপত্র আলাদা হয়ে থাকে। বাড়ির সব জিনিসপত্র একসাথে বক্সে নিয়ে প্যাক করলে কেউই ঠিক মত তার জিনিস খুঁজে পাবেন না! এজন্য বাড়ি শিফট করার সময় প্রত্যেক সদস্যের জন্য আলাদা আলাদা বক্স রাখা উচিৎ।

এই বিষয়গুলো মেইনটেইন করে কাজ করলে খুবই দ্রুততার সাথে শেষ হবে বাসা-বাড়ি শিফটের কাজ। বাসা-বাড়ি শিফট করার সময় এই বিষয়গুলো অবশ্যই খেয়াল রাখবেন।

Share with Friends:

10 colors for Cozier home। আপনার মুগ্ধকর ঘরের জন্যে…… (পর্ব-২)

living in colors

আগের পর্বে আমরা ৫টি চমৎকার রঙের সম্পর্কে জেনেছিলাম। এখন বলছি আরও ৫টি রঙের কথা।

 

Rich Blue
আপনার ড্রইং/ডাইনিং রুমের জন্যে Rich Blue চমৎকার একটি রং। নামের সাথে এর কাজেরও মিল আছে। আপনি যদি আর্টিস্টিক / শিল্পমনা হয়ে থাকেন অথবা বাসায় যদি অনেক আর্ট এলিমেন্ট  কালেকশনে থাকে তাহলে এই রঙটির সাথে খুব সুন্দর করে সাজিয়ে নিতে পারেন ঘরটিকে।

Rich Blue

 

Warm Amber:

ঘরে যদি থাকে আপনার একান্ত কোন রোম্যান্টিক ডিনার কর্নার তাহলে Warm Amber পারফেক্ট। আবার আপনার ড্রেসিং রুমটিও হতে পারে Warm Amber রঙের। যেকোনো রঙের পোশাক এই রঙে খুব স্পষ্ট  ভাবে ফুটে উঠে। এই রঙের প্রভাব আপনার মনকে করে তুলবে প্রাণবন্ত। একটু ডীপ শেডের রঙ  হওয়ায় এটি ঘরের অনেক জায়গাতেই ঠিক সোভা পায় না। । তবে নির্দিষ্ট একটি আড্ডার কর্নারের জন্যেও বেছে নিতে পারেন এই রং।

Warm Amber

 

Gray-Blue:

খুবই হালকা নীল শেডের এই রং আপনাকে দিবে একধরনের রিল্যাক্সিং পরিবেশ। যদি ঘরের আসবাবপত্রের জন্য আপনি শুদ্ধতার রং সাদাকে প্রাধান্য দিয়ে থাকেন তাহলে Gray-Blue আপনার জন্য সবচাইতে ভাল অপশন।

Gray Blue

 

Deep Green:

বারান্দা এবং ছাদের জন্যে এই রঙের চাইতে ভাল কিছু পাওয়া দুষ্কর। আপনার বারান্দা/ছাদে যদি গাছ অথবা বাগান করে থাকেন তাহলে এই রং তার  সৌন্দর্য বাড়িয়ে তুলবে বহুগুনে। আবার বিভিন্ন ডিজাইনের সাথে এটি ফুটিয়ে তুলতে পারে আপনার অন্যান্য ঘরকেও।

Deep Green

 

Sky blue:

হালকা Blue ঘরের পরিবেশ অনেক উজ্জ্বল করে দেয়। তবে এই রং সবচাইতে পারফেক্ট আপনার রান্না ঘরের জন্যে। রান্না ঘরের উষ্ণতা অনেকটাই কমিয়ে দেয় এই রং। এছারাও অন্যান্য ঘরের দেয়াল, সিলিং সহ সব জায়গাতেই খাপ খেয়ে যায় Sky blue।

Sky Blue

 

রঙের ব্যেপারে আরও কিছু জানতে অথবা প্রফেশনালের অভিমত চাইলে সাথে থাকুন হ্যান্ডিমামার

Share with Friends:

আসবাবপত্র দীর্ঘকাল ভালো রাখার ৬টি সহজ উপায়

আদিকাল থেকেই সংস্কৃতির বিকাশের সঙ্গে আসবাবপত্রের ক্রমবিবর্তন ঘটছে। সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে কাঠের আসবাবপত্রের সঙ্গে স্টিল, অন্যান্য ধাতু এবং প্লাস্টিকের তৈরি নানা ধরনের আধুনিক আসবাবপত্র বিস্তার লাভ করে। এগুলো এখন বাসগৃহ, অফিস, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, হোটেল, রেস্টুরেন্ট, হাসপাতাল এ ব্যবহার হচ্ছে।

হ্যান্ডিটিপসে আজকে থাকছে কিভাবে আপনার বাসা বা অফিসের আসবাবপত্রগুলো দীর্ঘদিন ভালো রাখা সে সম্পর্কে সিমপ্ল কিন্তু খুবই কার্যকরি কিছু পরামর্শ।

১। কভার ব্যবহার

যেকোনো আসবাবপত্রের উপর কভার ব্যবহার করতে হবে কারন বাড়িতে বাচ্চারা অথবা বড়রা স্ন্যাকস অথবা জুস খাওয়ার সময় সেটা আপনার বহু মুল্যবান আসবাবপত্রের উপর পড়তে পারে। যা পরবর্তিতে আপনার আসবাবপত্র লিক বা ফুটো করে দিতে পারে। আর আপনি এটি সহজেই এবং অনেক কম খরচে আপনার হাতের কাছে পাবেন, যা আকর্ষণীয় এবং দেখতে সুন্দর।

Untitled-7

২। লেদারের সঠিক যত্ন

চামড়ার আসবাবপত্র সুন্দরের প্রতীক এবং এটা দীর্ঘকাল সেবা দিয়ে থাকে। কিন্তু এর দীর্ঘকাল বজায় রাখার জন্য কিছু কিছু জিনিস মেনে চলতে হবে। যেমনঃ খাঁটি লেদারের উপর কখনই পানি ব্যবহার করা যাবে না। কারন পানির মধ্যকার হাইড্রোজেন এবং অক্সিজেন লেদারকে নষ্ট করে দেয়। তাই পানি পড়ার সাথে সাথেই সেটা নরম এবং শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে ফেলতে হবে। এছাড়াও অনেক সময় সুর্যের আলো চামড়ার ক্ষমতাকে নষ্ট করে দেয়।

Untitled-4

৩। আসবাবপত্রের উপর দাগ

ঘরবাড়ি পরিবর্তনের সময় অথবা অন্য যে কোনো কারনেই হোক প্রায়ই আসবাবপত্রের উপর দাগ পড়ে যায়। যেটা দেখতেও খারাপ লাগে। কাঠের আসবাবপত্রের উপর যেকোনো দাগ ঢাকতে সাধারণ সু -পলিশ ব্যবহার করতে পারেন।

Untitled-5

৪। সরাসরি সুর্যের আলো থেকে দূরে

আপনার ব্যবহৃত আসবাবপত্রে যাতে সরাসরি সুর্যের আলো না পড়ে সেদিকে খেয়াল রাখুন। সুর্যের ক্ষতিকর রশ্মি আপনার মুল্যবান আসবাবপত্র নষ্ট করে দিতে পারে। অনেক আসবাবপত্রের হয়তো রঙ ঝলসে দিতে পারে। তাই বাড়িতে পর্দা অথবা ক্ষতিকারক বেগুনী রশ্মি প্রোটেক্ট করে এমন কিছু ব্যবহার করতে হবে।

Untitled-3

৫। গরম পানিকে “না” বলুন

আসবাবপত্র ব্যবহার করার সময় কখনই গরম পানি ব্যবহার করা যাবেনা। এটা শুধু আসবাবপত্রকে নষ্টই করবে না সাথে সাথে আপনার মুল্যবান ফেব্রিক টাকেও ছিড়ে ফেলতে পারে। তাই যেকোনো আসবাবপত্র পরিস্কার করতে ঠান্ডা পানি ব্যবহার করুন।

Untitled-2

৬। প্রতিমাসে অন্তত একবার ভ্যাকুয়াম ক্লিনিং করুন

মাসে অন্তত একবার ভ্যাকুয়াম ক্লিনিং করুন যা আপনাকে এবং আপনার পরিবারকে ধুলোবালি এবং জীবানু থেকে রক্ষা করবে। ফেব্রিক খুব সহজেই ধুলোবালি টেনে নেয় এবং আপনার আসবাবপত্রকে ক্ষতি করে। তাই নিয়ম করে  ভ্যাকুয়াম ক্লিনিং করলে আপনার আসবাবপত্র দীর্ঘস্থায়ী হবে।

Carpet cleaning

————————————————
ভ্যাকুয়াম ক্লিনিংসহ প্রফেশনাল ক্লিনিং সার্ভিসের জন্য কল করুন- ০১৯ ২৮ ২৯ ২৯ ২৯ অথবা অর্ডার করুন- www.handymama.co
Share with Friends: